অনান্য

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গাইড

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং চলমান সময়ে এতোটা জনপ্রিয় একটি পেশা। যার নাম শুনেনি, এমন মানুষ খুজে পাওয়া দায়। লোগো ডিজাইন , ব্যানার ডিজাইন , এবং পণ্যের মোড়ক থেকে শুরু করে ফন্ট ও আইকনসহ সব কিছুতেই গ্রাফিক্সের কাজ রয়েছে। আধুনিকতার ছোঁয়ায় যেকোন কিছুর দৃষ্টি-নন্দন ডিজাইন করতে গ্রাফিক ডিজাইনের প্রয়োজন রয়েছে। এছাড়াও অফলাইনের পাশাপাশি, অনলাইনে ক্রমান্বয়ে বিভিন্ন বিজনেস বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে। দরকার পড়ছে বিভিন্ন রকম ডিজাইনের জন্য দক্ষ ও সৃজনশীল গ্রাফিক্স ডিজাইনার।

গ্রাফিক্স ডিজাইনে ক্যারিয়ার গড়তে হলে, যেসব দক্ষতা দরকারঃ-

  • ডিজাইন করার জন্য সৃজনশীল ও স্বতন্ত্র চিন্তাধারা।
  • ডিজাইন করার জন্য বিভিন্ন ব্যসিক/প্রাথমিক বিষয়াবলী সম্পর্কে জানা ।
    যেমনঃ কালার থিওরি। অর্থাৎ কোন রঙের সাথে, কোন রঙ মানানশই। এ সম্পর্কে মুটামুটি ধারণা থাকতে হবে। তবে, কাজ করতে করতে কালার সেপারেশন ও অ্যাডজাস্টমেন্টের ধারণা হয়ে যাবে।
  • গ্রাফিক সংক্রান্ত ডিজাইন-টুলস এর কাজ জানতে হবে। যেমনঃ- এডোবি ফটোশপ বা এডোবি ইলাস্ট্রেটর।
  • গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য ডিজাইন করা শিখতে, কত দিন লাগে সেটা আপনার উপর নির্ভর করে। তবে মনোযোগ দিয়ে নিয়মিত কাজ করলে। তিন/চার মাসে ফ্রিল্যান্সিং করার মত, দক্ষতা হয়ে যাবে। ইনশাআল্লাহ্।
  • এবং অনেক বেশি চর্চা করার ধৈর্য্য থাকতে হবে। কারণ অনুশীলনের ধৈর্য্য ও ডিজাইনের প্রতি মনোযোগ; আপনাকে ভাল ডিজাইনার হতে সাহায্য করবে।।

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে অনলাইনে আয়

অর্থাৎ যেভাবে উপার্জন হবেঃ-

  • একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হয়ে, আপনি কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন। সেটা ডিজাইনের দক্ষতা ও আপনার কাজের উপর নির্ভর করছে।
  • মনে রাখবেন: কষ্ট ছাড়া কেষ্ট মেলে না।
  • ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস এর মাধ্যমে অধিক পরিমাণে ইনকাম করতে হলে: আপনার কাজের দক্ষতা যেমন প্রয়োজন। তেমনি ভাল রেটিংসহ একটি সুন্দর প্রোফাইলও প্রয়োজন। সুতরাং নতুন বা প্রাথমিক অবস্থায় উপার্জন কম হলেও, ক্লায়েন্টকে তার দেয়া প্রজেক্ট কমপ্লিট করার মাধ্যমে খুশি করতে পারলে। এবং ভাল রেটিং অর্জন করতে পারলে, ঠিকই আপনার ক্যারিয়ারে সাফল্যের ছোঁয়া পাবেন।
  • মনে রাখবেনঃ নতুন বা প্রফেশনাল পর্যায়ে। খুব ভাল প্রোফাইল তৈরি করতে পারলে ঘন্টায় ৫০-৬০ ডলার উপার্জন করা সম্ভব।
  • তবে হ্যাঁ, শুধুমাত্র টাকার চিন্তায় মাথা নষ্ট না করে। নিয়মিত কাজ চর্চা করুন। এবং আপনার করা কাজগুলোর ডেমু হিসেবে, কোন পোর্টফোলিও সাইটে রাখুন। কেননা, এসব কাজ আপনাকে ক্লাইনটদের আকৃষ্ট করতে সাহায্য করবে।

গ্রাফিক্স ডিজাইন টিউটোরিয়াল

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে হলে। আপনাকে গ্রাফিক্স এর কাজ জানতে হবে। আর এজন্য তা অনলাইনের মাধ্যমে শিখতে পারেন। কারণ অনলাইন দুনিয়ায় বিভিন্ন সোর্স থেকে আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন টিউটোরিয়াল পাবেন। তবে আপনার সুবিধার্থে টিউটোরিয়াল শেখার জন্য যেসকল ওয়েবসাইট এর রেফারেন্স করছি। তা হলোঃ

বাংলা ভাষায় গ্রাফিক্স ডিজাইন টিউটোরিয়াল ওয়েবসাইট

১) গ্রাফিক্স স্কুল বিডি

২) স্যাট একাডেমী

৩) ক্রিয়েটিভ ক্ল্যান

৪) গ্রাফিক রিসার্ভ

ইংলিশ ভাষায় গ্রাফিক্স ডিজাইন প্রশিক্ষণ পেতে এই সাইটগুলোতে ভিসিট করুন-

ইংলিশে এডভান্স টিউটোরিয়াল

১) দ্য গ্রাফিক ডিজাইন স্কুল

২) ডিজিটাল আর্টস অনলাইন

Ads.bag

৩) ফটোশপ টিউটোরিয়ালস

৪) ফটোশপ এসেনশিয়াল

৫) পিএস টিউটোরিয়াল

অবশ্যই পড়বেন
ফ্রিতে গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার সেরা ওয়েবসাইট

গ্রাফিক্স ডিজাইন ভিডিও টিউটোরিয়াল

গ্রাফিক্স ডিজাইন ভিডিও টিউটোরিয়াল – বাংলা ভাষায় সম্পূর্ণ ফ্রিতে টিউটোরিয়াল
বাংলা ও ইংলিশ ভাষায় গ্রাফিক্স ডিজাইন এর ভিডিও টিউটোরিয়াল পেতে ভিসিট করুনঃ

১) গ্রাফিক স্কুল

ক্রিয়েটিভ ডিজাইন শিখার জন্য সেরা ইউটিউব চ্যানেল

২) আবু নাসের চ্যানেল

৩) সি.সি ডিজাইনার

গ্রাফিক্স ডিজাইন কত প্রকার

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার বিভিন্নভাবে গড়া সম্ভব। কারণ গ্রাফিক্স ই একমাত্র একটি স্বতন্ত্র জগৎ। যেখানে হাজার হাজার উপায় ও সবচেয়ে বেশি কৌশল অবলম্বন করে অফলাইনে ও অনলাইনে ইনকাম করা সম্ভব হয়। তবে, বর্তমানে গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটিপ্লেসে যে ধরণের ডিজাইনের জব পোষ্ট করা হয় ও বেশি পরিমাণে বিড পড়ে। এবং সবচেয়ে বেশি পরিমাণে গিগ তৈরি করা হয়। সেই ধরণের কয়েকটি ক্যাটাগরি নিচে উল্লেখ করলাম।

মূলত গ্রাফিক্স ডিজাইন কত প্রকার ও কি কি?

এ বিষয়ে জানতে এবং সম্পূর্ণ ফ্রিতে গ্রাফিক কোর্স করার জন্য যাবতীয় দিক-নির্দেশনা পেতে আপনি এখানে ক্লিক করে গ্রাফিক্স ডিজাইন গাইড লাইন সংক্রান্ত বিশেষ লেখাটি পড়তে পারেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে কি কি কাজ পাবেন

১) ক্রিয়েটিভ লোগো ডিজাইন।
২) ওয়েবসাইটের জন্য পিএসডি তৈরি।
৩) বিজনেস কার্ড ডিজাইন।

৪) টি-শার্ট ডিজাইন।
৫) আইকন ডিজাইন।
৬) ব্যানার/পোস্টার ডিজাইন
৭) ফন্ট স্টাইল করণ।

৮) প্রোডাক্টস হলোগ্রাম ডিজাইন।
৯) স্টিকার ডিজাইন।
১০) ইমেজ রি-সাইজিং এন্ড এডিটিং।

১১) কনভার্ট পিএসডি ফাইল টু ভেক্টর ফাইল।
১২) ফটো রিটাচিং এবং স্কেচ তৈরিসহ ইত্যাদি।

নতুনদের জন্য পর্যালোচনা

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে হলে যা জানাটা খুবই প্রয়োজন।
উদাহরণস্বরুপঃ লোগো ডিজাইন

লোগো কি?

যেকোন কোম্পানি, প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তিগত কোন কিছুর পরিচয় বহনকারী ছবি’কে লোগো বলে। যেমনঃ কেউ যদি কোনো মোবাইলের পেছনে, আপেল এর ছবি দেখে। তাহলে সে সহজেই বলতে পারবে: এই মোবাইলটি iphone ব্র্যান্ড এর। সুতরাং বুঝতেই পারছেন কিভাবে একটি লোগো, একটি কোম্পানির পরিচয় বহন করে। আর এজন্যই “লোগো ডিজাইন” এতো গুরুত্বপূর্ণ। তবে হ্যাঁ! লোগো ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং করার আগে আপনাকে তো লোগো, ডিজাইন করা শিখতে হবে।

লোগো তৈরির আইডিয়া
লোগো তৈরির জন্য আপনি বিভিন্ন কোম্পানির লোগো দেখতে পারেন। এবং সেখান থেকে আইডিয়া নিতে পারেন। তবে ক্লায়েন্ট এর লোগোটি যাতে ইউনিক ও সৃজনশীল সম্পন্ন হয়, এই বিষয়টা খেয়াল রাখবেন। এবং সবসময় চেষ্টা করবেন: আপনার ডিজাইনকৃত লোগো টি যেন কোম্পানীর নামের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়।

লোগো ডিজাইন এর জন্য Photoshop নাকি Illustrator বেস্ট হবে?

আপনি চাইলে এডোবি ফটোশপ দিয়েও লোগো তৈরি করতে পারেন। তবে লোগো ক্যাটাগরির গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে, আমার পরামর্শ হলোঃ আপনি সব সময় Adobe Illistrator দিয়ে লোগো ডিজাইন করবেন।

কারণ-
* Adobe Photoshop (রাস্টারাইজ গ্রাফিক্স): এডোবি ফটোশপ দিয়ে ডিজাইন করার ফলে। ছবি ছোট বা বড় করলে, ফেটে যায়।

  • *Adobe Illustrator (ভেক্টর গ্রাফিক্স): এডোবি ইলাস্ট্রেটর দিয়ে ডিজাইন করার ফলে। ছবি ছোট বা বড় করলে, ফাটে না।

লোগো ডিজাইন শেখার জন্য আপনাকে যা মাথায় রাখতে হবেঃ-
আপনি যদি একজন ভাল মাপের লোগো ডিজাইনার হতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই নিজের বিষয়গুলোর উপর জোড় দিতে হবে-

১. একটি লোগো, প্রতিষ্ঠান ও এর অডিয়েন্সের মধ্যে যোগসূত্র তৈরি করেঃ

একটি লোগো কেবলমাত্র দেখার সৌন্দর্যের জন্য তৈরি করা হয়না। বরং এর ভেতর থাকে, একটি প্রতিষ্ঠানের অন্তর্নিহিত গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ। তাই কোন প্রতিষ্ঠানের লোগো তৈরি করার আগে, সেই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে জানতে হবে। অর্থাৎ এটি কি কোন ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান নাকি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। যদি ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান হয়ে থাকে। তাহলে এই কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানটি কাদের সাথে কাজ করে। এবং কি ধরণের সিম্বল বা প্রতীক ব্যবহার করলে, এই প্রতিষ্ঠানটির জন্য সব চাইতে উত্তম ব্র্যান্ডিং সম্ভব হবে?

যেকোন ডিজাইনের ক্ষেত্রে “কালার“ চয়েজ গুরুত্বপূর্ণ। সুতরাং খুবই সচেতনতার সাথে, কালার নির্বাচন করতে হবে। এবং পারলে, যেকোন লোগোতে সিম্বল বা প্রতীক যোগ করার চেষ্টা করবেন। তবে, সেটা ইউনিক হতে হবে।

২) কোম্পানির ব্র্যান্ড এর দিকে নজর দিনঃ

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং করতে হলে, যেকোন ডিজাইন তৈরির আগে একটি স্কেচ তৈরি করে নিলে ভাল হয়। তারপর, খেয়াল রাখতে হবে ব্যন্ডিং মেথডের দিকে। অর্থাৎ ক্লাইন্টের আগে কোন লোগো আছে কিনা। এবং যদি ক্লাইন্ট এর অন্য কোন প্রতিষ্ঠান থাকে, তাহলে সেই প্রতিষ্ঠানের লোগো দেখুন। এতে করে ক্লাইন্টের কি ধরণের লোগো পছন্দ, সেটা আপনি সহজেই বুঝতে পারবেন। একইভাবে সকল ধরণের ডিজাইন করার জন্য, আপনি ক্লাইন্ট এবং তার আইডিয়া এবং পছন্দ সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন। যার ফলে সহজেই আপনি আপনার কাঙ্খিত ডিজাইন করতে পারবেন।

৩. সব কিছুরই ব্যাকআপ রাখুনঃ

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং করতে গেলে দেখা যাবে, আপনি একবারে আপনার ডিজাইনটি কমপ্লিট করে ফেলতে পারবেন না। কারণ-

  • ** হয়তোবা ডিজাইনটি প্রথমবার সাবমিট করার পর, ক্লাইন্ট আপনাকে কোন অংশ চিঞ্জ করতে বলতে পারে।
  • ** পরে হয়তো সেটি চেঞ্জ করার পর আবারও কোন অংশ পরিবর্তন করতে বলতে পারে।

আর এই জন্য প্রতিবার সাবমিট করার সময় অবশ্যই প্রত্যেকটা প্রজেক্টের ভিন্ন ভিন্ন ব্যাকআপ রেখে দিবেন। কারণ এমনও হতে পারে-

কয়েকবার আপনাকে দিয়ে ডিজাইনের বিভিন্ন অংশ চেঞ্জ করানোর পর ক্লাইন্ট বলতে পারেঃ প্রথম বারের টাই ভাল ছিল। তাই যদি প্রতিবারের ওয়ার্ক (প্রজেক্ট) সাবমিট এর আগে, ব্যাকআপ না রাখেন। তাহলে পরে হয়তো, অনেক সময় সাপেক্ষ ও ঝামেলায় পরতে পারেন। সুতরাং প্রত্যেকবার ডিজাইন সাবমিট করার আগে, অবশ্যই ডিজাইনটির ব্যাকআপ রাখবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন এ ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে অনলাইন থেকে আয় করার জন্য আপনাকে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে গিয়ে কাজ করতে হবে। তবে, আপনি অনেক ক্লায়েন্ট এর সাথে কাজ করতে করতে, একটা পর্যায়ে দেখবেন পুরোনো ক্লায়েন্টের কাজ করেই প্রতি মাসে কয়েক লক্ষ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

গ্রাফিক ডিজাইনারদের জন্য কিছু জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসঃ
99designs.com
Graphicriver.net
Coroflot.com
Dribble.com
Upwork.com
freelancer.com

    আসল কথা হলো, কোন মার্কেটপ্লেস এ গিয়ে গ্রাফিক্স ডিজাইন সংক্রান্ত কাজ পাওয়া যাবে? এর জন্য বিস্তারিত তথ্য সহকারে জানতে ভিসিট করুনঃ
    গ্রাফিক্স ডিজাইন করে অনলাইনে আয়ের সেরা কয়েকটি ওয়েবসাইট

    Show More
    moneyBag24 Ads.bag

    Related Articles

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Back to top button
    close
    Close
    Close

    Adblock detected

    Please! Close the Ads blocker.
    %d bloggers like this: