অনলাইনে আয়অনান্যআইডিয়াআউটসোর্সিংউদ্যোক্তাওয়ার্ডপ্রেসটিউটোরিয়ালটিপস ও ট্রিকসপ্রশিক্ষণফ্রিল্যান্সিংব্যবসাশিক্ষা
Update

ব্লগিং করে আয় টাকা করতে চান? জেনে নিন সহজ নিয়ম

ব্লগিং করে টাকা আয় করা অনলাইনে উপার্জনের সহজতম উপায় গুলোর মধ্যে অন্যতম। এর অন্যতম আকর্ষন হল যে, এটি করার জন্য নির্দিষ্ট অফিস বা জায়গার প্রয়োজন হয়না। বরং আপনি চাইলে ঘরে বসেও করতে পারবেন।

অন্য যে কোন কাজের তুলনায় আপনি যদি ব্লগিং করেন তবে আপনাকে ৯টা – ৫টা কাজ করতে হবেনা। আপনি দিনের যে কোন সময়, সুবিধামত কাজ করতে পারবেন।

ব্লগিং কি?

ব্লগ শব্দটি ইংরেজি Blog এর বাংলা প্রতিশব্দ, যা এক ধরণের ব্যক্তিগত ডায়েরি বলতে পারেন। আর “ব্লগ” শব্দটি ইংরেজি শব্দটি Weblog এর সংক্ষিপ্ত রূপ। যিনি ব্লগে কনটেন্ট পোস্ট করেন, তাকে ব্লগার বলা হয়। যেমনঃ এই মুহুর্তে আপনি যেই লেখাটি পড়ছেন। সেটির লেখককেও আপনি একজন ব্লগার বলতে পারেন। ব্লগাররা নিয়মিত তাদের ব্লগসাইটে কনটেন্ট পাবলিশ করে থাকেন। আর ভিসিটরগণ পোষ্টগুলো পাঠ করতে আসে। এবং প্রয়োজন হলে, সেখানে তাদের মন্তব্য উপস্থাপন করতে পারে। তাছাড়া বর্তমানে ব্লগিং করাটা অনেকে ফ্রিল্যান্সিং পেশা হিসেবে নিচ্ছে।

আরো বিস্তারিত জানতে পড়তে পারেন: বাংলা ভাষায় সর্ব প্রথম ব্লগসাইট “সামহোয়্যার ইন ব্লগ ডট নেট” থেকে।
এবং জানতে পড়ুন: বৃহৎ জ্ঞান ভান্ডার “উইকিপিডিয়া ব্লগ

ব্লগিং করা কি হালাল নাকি হারাম? আলোচনা ও সমালোচনার সমন্বয়ে সৃষ্টি একটি কিংবদন্তি ব্লগ পোষ্ট

ব্লগিং কত প্রকার?

সাধারণত ক্যাটাগরির উপর ভিত্তি করে ব্লগিং বহু প্রকারের হতে পারে। যেমনঃ
নিউজ পোর্টাল ব্লগ,
আর্ট ব্লগ,
ছবি বা ফটো ব্লগ,
ভিডিও ব্লগিং,
সঙ্গীত বা এমপিথ্রি ব্লগ,
পডকাস্টিং
মাইক্রোব্লগিং
অটোব্লগ
প্রশ্ন-উত্তর ব্লগ
সাধারণ জ্ঞানের ব্লগ ইত্যাদি।

যদিও অধিকাংশ ব্লগে কোন একটি নির্দিষ্ট বিষয়াবলী সম্পর্কিত পোষ্ট করা হয়। তারপরও অনেক ব্লগে দেখা যায়, উপরের অনেক ক্যাটাগরির সমন্বয়েও ব্লগপোস্টিং করা হয়।

বেশিরভাগ ব্লগই নির্দিষ্ট ক্যাটাগরির ভিত্তিতে তৈরি করা হয়। বাকীগুলো ব্যক্তিগত অনলাইন দিনলীপি। একটি ব্লগ হলো লেখা, ছবি, অন্য ব্লগ, ওয়েব পৃষ্ঠা, এ বিষয়ের অন্য ওয়েব সাইটের লিংক ইত্যাদির সমাহার।

ব্লগ থেকে কিভাবে আয় করা যায়

ব্লগ সাইট থেকে ইনকাম করার জন্য অনেক উপায় রয়েছে। বলা যেতে পারেঃ একটি ব্লগসাইট ই হতে পারে আপনার আয়ের উৎস। বা আপনার কর্মসংস্থান। তবে ব্লগিং করে আয় করার জন্য আপনার ওয়েবসাইট থেকে ব্লগিং সাইটে রুপ দিতে হবে। যার জন্য তো আপনাকে আগে কয়েকটি শর্ত মানতেই হবে।

একটি ব্লগসাইট হওয়ার জন্য যেসকল শর্তগুলো অনস্বীকার্যঃ

Ads.bag
  • বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখি করা হলেও, নির্দিষ্ট একটি ক্যাটাগরির উপর অধিক গুরুত্বারোপ করতে হবে।
  • ব্লগপোস্টের শেষে ভিসিটর ও পাঠকরা যেনো তাদের ব্যক্তিগত মতামত প্রকাশ করতে পারে। সেজন্য কমেন্ট বক্স থাকতে হবে।
  • ব্লগ কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার জন্য কন্টাক্ট পেজ থাকতে হবে।
  • সাইটের প্রাইভেসি পলিসি, সাইট ব্যবহারকারীদের জন্য নীতিমালা, শর্তসমূহ স্পষ্ট ভাবে উল্লেখ থাকতে হবে। যেটিকে “টার্মস এন্ড কন্ডিশন” পেজ বলা হয়।
  • সাইট সম্পর্কে যেনো ভিসিটররা জানতে পারে। এজন্য “ এবাউট আস” পেজ থাকতে হবে।
  • ব্লগসাইটের প্রতিটি কনটেন্ট থাকতে হবে ইউনিক (স্বতন্ত্র)। অর্থাৎ অন্য কারো সাইট থেকে ছবি, ভিডিও, লেখা বা অন্যসকল কনটেন্ট হুবুহু কপি-পেস্ট করা যাবে না।
  • প্রতিনিয়ত নতুন নতুন বিষয়ে পোষ্ট করতে হবে।

উপরের সবগুলো বিষয় ঠিক ঠাক মতো হলে, আপনি প্রাথমিক পর্যায়ে তিনভাবে ইনকাম করতে পারবেনঃ

১) ব্লগ তৈরি করে উপার্জন
২) ব্লগিং করে টাকা আয়
৩) এডসেন্স থেকে ইনকাম

ব্লগ তৈরি করে উপার্জন

আপনার যদি লেখালেখিতে ভালো অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা থাকে। তাহলে, আপনি নিজস্ব ব্লগ তৈরি করে আয় করতে পারবেন। তাছাড়া ব্লগ বিক্রি করেও আপনি প্রচুর টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে পড়ুনঃ

পড়তে পারেনঃ

ওয়েবসাইট বিক্রি করে আয় করার চূড়ান্ত টিউটোরিয়াল

ব্লগ তৈরি করার জন্য আপনি সিএমএস টুলসও ব্যাবহার করতে পারেন। সিএমএস টুলস বলতে যেখানে সবকিছু আগে থেকেই রেডিমেটলি করে দেওয়া থাকে। অর্থাৎ ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য আপনাকে প্রোগ্রামিং, কোডিং জানতে হবেনা। বরং সিম্পল কিছু নিয়ম মেনে আপনি সাইট তৈরি করতে পারবেন।

কিভাবে ব্লগ তৈরী করব?

গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন হলো: কিভাবে ব্লগ তৈরি করবেন?

সাধারণত দুইভাবে ব্লগ তৈরি করা যায়ঃ

১) ফ্রি ব্লগ সাইট।
২) কাস্টম বা পেইড ব্লগ সাইট।

ফ্রি ব্লগ সাইট।

যেমনঃ গুগলের ব্লগস্পট। এবং গুগলের পার্টনার হাবপোস্ট। এখানে আপনাকে কোন রকমের টাকা-পয়সা খরচ করতে হবে না। বরং সাবডোমেইন দিয়েই আপনি ব্লগসাইট তৈরি করে। গুগল এ্যাডসেন্স ও বিভিন্ন উপায়ে ইনকাম করতে পারবেন।

কাস্টম বা পেইড ব্লগ সাইট

যেমনঃ ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা ও ড্রুপালসহ ইত্যাদি সিএমএস।
এখানে ইনকাম করার মতো পূর্ণ একটি ব্লগসাইট তৈরি করতে হলে, আপনাকে ডোমেইন কিনতে হবে। এবং হোস্টিং তো মাস্টবি কিনতেই হবে। তা নাহলে শুধুমাত্র তাদের সাব-ডোমেইন দিয়ে তেমন ইনকাম করতে পারবেন না।

বিঃদ্রঃ

ব্লগিং করতে হলে, মোটামোটি এসইও জানতে হয়। যারা না বুঝেন তারা গুগলে সার্চ করুন:“ এসইও টিউটোরিয়াল বাংলা”। এবং এসইও এর প্রাথমিক কাজগুলো শিখে নিন।

এসইও এক্সপার্টদের জন্য একটি কথাঃ

আগে গুগল এর সার্চ ইঞ্জিনের নীতি ছিল। সাব-ডোমেইন এর তুলনায় রোট ডোমেইন বা মেইন ডোমেইন এর রেঙ্ক বেশি পেত। কিন্তু ২০১৯ সালে এসে নীয়মটা আপডেট হয়েছে। এখন থেকে আপনি আপনার কনটেন্ট এর উপর ভিত্তি করে yourSubDomain.Blgospot.com দিয়ে গুগলে প্রথম পাতায় ফার্স্ট রেঙ্কিং য়ে আনতে পারবেন।

সুতরাং এখন থেকে, পেইড ডোমেইন এবং সাব-ডোমেইন এর কোন রেঙ্কিং ইস্যুতে পার্থক্য নেই।

দুটি সাব-ডোমেইন এর উদাহরণঃ
১) মেইন ডোমেইনঃ https://www.blogspot.com/

  • সাব-ডোমেইনঃ https://mylinksy.blogspot.com/

2) মেইন ডোমেইনঃ https://moneybag24.com/

  • সাব-ডোমেইনঃ https://offer.moneybag24.com/

একটি সাব-ডিরেক্টরি সাইটের উদাহরণঃ
মেইন ডোমেইনঃ https://moneybag24.com/

  • সাব-ডিরেক্টরি ডোমেইনঃ https://moneybag24.com/viral/

##সাব-ডিরেক্টরি ডোমেনকেও অনেক ক্ষেত্রে সাব-ডোমেইন হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

ব্লগিং করে টাকা আয়

ব্লগিং করে আয়
ব্লগিং করে আয় করার সহজ ও সঠিক নিয়ম

ব্লগ লিখে টাকা আয় করতে হলে আপনাকে একটি কথা মাথায় রাখতে হবে :-

উপার্জন শুরু হতে ব্লগিং এ একটু সময় লাগে। কাজেই আপনার উচিৎ হবে আস্তে আস্তে এটা শুরু করা।

হুট করে কাজ-কর্ম সব বাদ দিয়ে ব্লগিং শুরু করা কখনই বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। বরং আপনাকে যেটা করতে হবে তা হলো। আপনার অন্য কাজের পাশাপাশি ব্লগিং শুরু করা।

পড়তে পারেন
আয় করার মতো সেরা ১০টি ওয়েবসাইট

যখন মনে হবে। ব্লগিং থেকে আপনি পর্যাপ্ত পরিমাণ আয় করছেন। শুধুমাত্র তখন থেকেই এই পেশাকে ফুলটাইম হিসাবে নিবেন। তার আগে নয়।

আর হ্যাঁ, ব্লগিং করতে হলে নিজস্ব ব্লগ সাইট থাকতে হবে। এমন কোন শর্ত নেই। বরং আপনি চাইলে অন্যের ব্লগেও ব্লগপোষ্ট লিখে অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

আপনি চাইলে মানিব্যাগ২৪.কম এ আর্টিকেল লিখে আয় করতে পারেন।

আর্টিকেল লিখে আয় করার সেরা ওয়েবসাইট

পড়তে পারেন
আর্টিকেল লিখে আয় করার সেরা ওয়েবসাইট

ব্লগ লেখার নিয়ম

ব্লগার হতে হলে আপনাকে যেহেতু অনেক কিছু লিখতে হবে। কাজেই আপনাকে প্রথমে অনেক কিছু জানতেও হবে। সুতরাং সুন্দর ও ভিসিটর এট্রাকটিভ পোষ্ট করার জন্য আপনাকে দক্ষতা অর্জন করতে হবে। তাহলেই আপনি সফল হবেন।

আরো পড়ুনঃ সফল হওয়ার উপায়

যেমন সময় দরকারঃ

এক থেকে দুই দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় সেটআপ করে ফেলা যায়। তবে আপনার যদি এসব সেট-আপ এর অভিজ্ঞতা থাকে। সেক্ষেত্রে কয়েক ঘন্টাতেও আপনি ব্লগ তৈরি করে ব্লগিং করতে পারবেন। এবং লেখার হাত ভালো হলে, ও এসইও সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকলে এক সপ্তাহের মধ্যেই গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে ইনকাম শুরু করতে পারবেন ( আমি করতে সক্ষম হয়েছি)। তাছাড়া এফিলিয়েট মার্কেটিং, প্রোডাক্ট প্রমোট, লিংক শেয়ারিংসহ বিভিন্ন উপায়ে ইনকাম করার উপায় তো আছেই।

ব্লগিং করার কিছু নির্দেশিকাঃ

  • এমন বিষয়ে ব্লগিং শুরু করুন যেটাতে আপনি খুব দক্ষ বা আপনার অনেক জ্ঞান আছে।

কিংবা এমন কিছু যা আপনি অন্যদের সাথে শেযার করতে পারেন। উদাহরণ হিসাবে বলা যায়ঃ ঘুরাঘুরি বা খেতে যাওয়ার অভিজ্ঞতা।

  • একটা ব্লগ একটা নির্দিষ্ট বিষয় বস্তুর উপর ভিত্তি করে হওয়া উচিত।

খাবারের ব্লগে যদি আপনি অনলাইন ইনকাম সম্পর্কিত পোষ্ট করেন। বা কোনো টেক-গ্যাজেট এর রিভিউ দেন। তাহলে তা দৃষ্টিকটু হয়ে যায়।

  • অন্যদের কপি না করে চেষ্টা করুন, আপনার নিজের মত করে সুন্দর এবং গ্রহণযোগ্য লেখা লিখতে।

পড়তে পারেনঃ
ইউটিউবের মাধ্যমে কয়েকগুণ বেশি ইনকাম করার কিলার টিক্স

  • এমন কিছু লিখুন যা আপনার পাঠক পরে উপকৃত হবে।
  • পাঠকদের মন্তব্যের উত্তর দিন। তারা কোন সমস্যায় পরলে সমাধান করে দেয়ার চেষ্টা করুন।
  • কাউকে ছোট না করে চেষ্টা করুন গঠনমূলক সমালোচনার।
  • সব সময় শেখার আগ্রহ রাখুন। অন্যদের ব্লগ দেখুন। তাদের থেকে ভালো টপিকস ও দিকগুলো গ্রহণ করুন।
  • অন্য ব্লগারদের সাথে কাজ করার সুযোগ পেলে কাজে লাগান।

কারণ তাদের কাছ থেকেও আপনার সব সময়ই কিছু না কিছু শেখার থাকে। তাই অন্য ব্লগারদের কাছ থেকে শিখার মানসিকতা রাখুন।

পরিশেষে, লেখাটি পড়ে আপনার ভালো লাগা, মন্দ লাগা, বুদ্ধি, উপদেশ, পরামর্শ, অভিযোগ বা কিছু প্রশ্ন করার থাকলে। অবশ্যই কমেন্ট বক্সে লিখে জানান। সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবো। ইনশাআল্লাহ।

আপনার ভবিষ্যত জীবণ সাফল্য মন্ডিত হোক। এই আশা ব্যক্ত করে এখনকার মতো শেষ করছি। ধন্যবাদ।।

Show More
moneyBag24 Ads.bag

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
close
Close
Close

Adblock detected

Please! Close the Ads blocker.
%d bloggers like this: