অনান্য

Best micro jobs site

এই পোষ্টে আমি 10 টি best micro jobs site নিয়ে লিখেছি। মাইক্রো জবকে micro freelancing ও বলা হয়। এসকল প্লাটফর্মে ছোট ছোট কাজ থাকে। যা সঠিকভাবে সম্পাদন করার বিনিময়ে অর্থ প্রদান করা হয়।

যেমনঃ সাইন আপ করা। ফেসবুক পেইজে লাইক দেয়া, ইয়াহু উত্তর দেয়া। ব্লগ এ পোস্ট করা, youtube এ কমেন্ট ও সাবস্ক্রাইব করা ইত্যাদি।

best micro jobs site

অনলাইনে রিসার্চ করলে। আপনি অসংখ্য মাইক্রো জব সাইট পাবেন। যেগুলোর অধিকাংশ স্কেম বা Fake। তাই আমি দীর্ঘ মেয়াদী রিভিউ, রিসার্চ ও প্রমাণসহ যাচাই বাছাই করার পর। 10 টি best legitimate micro jobs site নিয়ে আলোচনা করছি। যার ফলে, অনলাইনে আয় করা আপনার জন্য নন-রিস্কি হবে।

মাইক্রো জবের সুবিধা:

যেহেতু এটি একটি মাইক্রো ফিল্যান্সিং। তাই অনান্য ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্মের মতো এখানেও বায়ার কাজ দেয়। আর ফ্রিল্যান্সারগণ সেই কাজ করার মাধ্যমে টাকা আয় করে।

কিন্তু মাইক্রো জবের ক্ষেত্রে। অনান্য ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলোর মতো

  • কাজের জন্য আবেদন (বিড) করতে হয়না।
  • কাজ পাবার সম্ভাবনা শতভাগ নিশ্চিত।
  • কোন যোগ্যতা বা অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নাই। (কারণ, কোন কাজটি কিভাবে করবেন। সেই ব্যাপারে নির্দেশনা দেওয়া থাকে।
  • তবে অভিজ্ঞতা থাকলে, অল্প সময়ে ভাল আয় করা যায়।

জবের ধাপঃ-

1) কাজের নির্দেশনা ভালভাবে পড়তে হবে।
2) উল্লেখিত নিয়মে কাজ সম্পাদন করতে হবে।
3) সবশেষে কাজের প্রমান (Proof) জমা দিতে হবে।

যা না জানলেই নয়ঃ-

এখানে ২ ধরনের কাজ পাওয়া যায়:-
1) সাধারন কাজ (Basic Tasks)
2) বিশেষ কাজ (Hire Group Tasks)

  • *সাধারন কাজঃ এ ধরণের কাজ সবার জন্য উন্মুক্ত । আপনি রেজিষ্টেশন করার সাথে সাথেই এই কাজগুলো করতে পারবেন।
  • *বিশেষ কাজঃ এ ধরণের কাজ বায়ার (ক্লায়েন্ট) তার পছন্দমত কর্মীকে দিয়ে থাকে। সাধারণ কাজগুলো করতে করতে আপনার প্রোফাইল এর বিশেষত্ব বাড়ালে বায়ারই আপনাকে তাদের গ্রুপ এ জয়েন করাবে। এর জন্য কোন বিড করার প্রয়োজন নাই।

১০ টি সেরা মাইক্রো জব সাইট

1) UserTesting

প্রতিনিয়ত ওয়েবসাইট ও মোবাইল এ্যাপস’র চাহিদা বাড়ছে। সেই সুবাদে ওয়েব ও এ্যাপস ডেভেলপমেন্টিং ক্রমশ বাড়ছে। যার ফলে, এগুলোর ব্যবহারকারীর ইন্টারফেসও খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

Ads.bag

ইউজারটেস্টিং এ রেজিষ্ট্রেশন করার পর। তারা আপনাকে বিভিন্ন ওয়েবসাইট বা মোবাইল এ্যাপসের রিভিউ বা টেস্ট করতে দেবে। সেটা সফলভাবে সম্পন্ন করতে হবে।এবং আপনার কম্পিউটারের স্ক্রিন শর্ট তুলে প্রমাণ হিসেবে তাদেরকে পাঠাতে হবে।

এটি একটি best paying micro job sites।
কারণ, শুধুমাত্র website বা apps ভিজিট করে টেস্ট করে দেখতে হবে যে, কতটা ইউজার ফ্রেন্ডলি। আর প্রতিটি কাজ সম্পন্ন করতে 15 থেকে 20 মিনিট সময় লাগবে। যার বিনিময়ে তারা আপনাকে 10 থেকে 60 ডলার পর্যন্ত পেমেন্ট করবে।

2) mTurk

এটি Amazon Mechanical Turk নামেই পরিচিত। একটি জনপ্রিয় মাইক্রো ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম। এখানে প্রতিটি জবকে Hit বলা হয়। আর হ্যাঁ! যেহেতু এটি অ্যামাজন কোম্পানীর একটি প্লাটফর্ম। সুতরাং, বুঝতেই পারছেন। এটি একটি best micro job site।

এখান থেকে প্রতিদিন মিনিমাম $10 দশ ডলার আয় করা যায়। এজন্য আপনাকে অনলাইন ও প্রযুক্তির সম সাময়িক বিষয়ে জ্ঞান রাখতে হবে। আর ইংরেজিতে এক্সপার্ট থাকলে তো আরোও ভালো।

কাজ করার নিয়ম:

  • *প্রথমে আপনাকে একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হবে।
  • তারপর ই-মেইলে পাঠানো ভেরিফিকেশন নাম্বারটি ভেরিফাই করতে হবে।
  • ভেরিফাই হয়ে গেলে, তারা আপনার একাউন্টটি রিভিউ করবে।
  • এবং সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর, যদি একাউন্ট একটিভ করে।
    তাহলে আপনি কাজের দিক নির্দেশনা পেয়ে যাবেন। সেই সাথে কাজ (Hit) কমপ্লিট করার মাধ্যমে যতো ইচ্ছা ততো ইনকাম করতে পারবেন।

3) Clickworker:

Clickworker 2005 থেকে প্রায় 136 টি দেশের মাইক্রো ফ্রিল্যান্সারদের ভালো সার্ভিস দিয়ে আসছে। এই সাইটটিতে রাইটিং, অনুবাদ, অনলাইন রিসার্চ, ডাটা এন্ট্রি করাসহ বিভিন্ন রকমের কাজ করা যায়।

ইমেজ ক্লাসিফাইডের মতো সাধারণ কাজগুলো করতে পারেন। এ জন্য কোন যোগ্যতার প্রয়োজন হয় না। তবে, অধিক পরিমাণে ইনকাম করতে চাইলে।

অন্যান্য মাইক্রো জব সাইটের মতো। অবশ্যই বিশেষ দক্ষতার প্রয়োজন হয়। আর ধৈর্য্য ধরে কাজ করতে থাকলে। খুব অল্প সময়েই মোটা অংকের টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

এই micro jobs Site টির সুবিধা:

ক্লিক-ওয়ার্কারে আপনি কয়েকদিন কাজ করলে। সহজেই ওদের টেকনিক জব্দ করতে পারবেন। অথবা গুগলে সার্চ করে মাইক্রো জবস সংক্রান্ত অনেক ফোরাম ও কমিউনিটি পাবেন।

যেগুলোর যে কোন একটিতে জয়েন করে। এক্সপার্ট কারো সাথে কথা বলে। আপনি ক্লিক-ওয়ার্কারের কৌশলগুলো জব্দ করতে পারেন।

কয়েক ধরণের সার্ভে আছে। যেমন: Pollfish, Adscend এবং Peanut Labs সার্ভে ।যেগুলোর প্রতিটি কাজের রেট $3 ডলার অব্দি হয়ে থাকে। ফলে, আপনি প্রতিদিন মিনিমাম 10 ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারবেন।

এছাড়াও, UserTest এর মতো এখানেও অ্যাপস টেস্টের কাজ পাওয়া যায়। যেগুলো প্রতিটি কাজ সম্পূর্ণ করতে পারলে। আপনি 15 – 20 ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন।

4) oneSpace

oneSpace একটি expert লেভেলের মাইক্রো জবস ওয়েবসাইট। এর মাধ্যমে আয় করতে হলে। ভালো রাইটিং, কপি রাইটিং, ইমেজ ট্যাগিং এবং ট্রান্সক্রিপশন করার মতো দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার দরকার হয়।

আমার সাজেশন: আপনি যদি ইংরেজিতে রাইটিং ও এসইও না জানেন। এবং পূর্বে অন্য কোন মাইক্রো ফ্রিল্যান্সিং সাইটে কাজ করার অভিজ্ঞতা না থাকে। তাহলে, এই সাইটটিতে কাজ না করাই ভালো।

আর হ্যাঁ! যদি আপনি উল্লিখিত কাজগুলোতে অভিজ্ঞ হয়ে থাকেন। তাহলে আমি বলব। OneSpace এর একাউন্ট খুলে ফেলুন। কারণ, এই সাইটটিতে কাজ করে। প্রতি সপ্তাহে 500 ডলার পর্যন্ত আয় করা যায়।

ওয়ানস্পেস” সম্পর্কে রিভিউ পড়তে এখানে ক্লিক করুন

5) Microworkers

Microworkers একটি online small jobs site। এখানে জবের ধরণ, সময় ও রেট স্পষ্টভাবে উল্লেখ থাকে।
এই মার্কেটপ্লেসে প্রায় 200 ধরণের কাজ পাওয়া যায়।

যার মধ্যে ডাটা মাইনিং, ডাটা লেবেলিং, ট্রান্সক্রিপশন, সার্ভে। এবং ডাটা ক্যাটাগরিজাইশন, ব্লগ সাবস্ক্রিপশন, ওয়েবসাইট ও নির্দিষ্ট অ্যাপস এ রেজিষ্ট্রেশন অন্যতম।

আসলে এটি ১টি মাইক্রো আনিং সাইট। অর্থাৎ যেহেতু এখানে ছোট ছোট কাজ পাওয়া যায়। তাই কাজের রেটও খুব কম। যেমন: প্রতিটি কাজের জন্য আনুমানিক $0.03 – $0.50 সেন্ট পাবেন।

বি:দ্র: 100 সেন্ট= 1 ডলার। (একশত সেন্ট= এক ডলার)

তবে, আপনি যদি প্রতিনিয়ত কাজ করতে থাকেন। তাহলে প্রতিদিন সর্বনিম্ন $5 পর্যন্ত আয় করতে পারবেন।
নতুনদের অনলাইনে আয়ের জন্য এটা একটা সেরা সাইটও বলতে পারেন।

6) Rapidworkers

যদিও Microworkers কিছুটা প্রফেশনাল। তারপরও বলতে হয়। Rapidworkers ওয়েবসাইটটি মাইক্রোওয়ার্কার্সের মতোই। এবং প্রায় একই ইন্টারফেসযুক্ত।

তবে এর নিজস্ব কিছু বিশেষত্ব আছে। যেগুলো কাজ করতে গেলে আপনি নিজে নিজেই বুঝতে পারবেন।

এখানে সাধারণত যে ধরণের কাজ পাওয়া যায়:

  • ফাইল ডাউনলোড করা।
  • এ্যাপস ডাউনলোড করা।
  • রিভিউ লেখা।
  • ব্লগে কমেন্ট করা।
  • ব্লগ সাবস্ক্রাইব করা।
  • YouTube এ লাইক, কমেন্ট ও সাবস্ক্রাইব করা।
  • ফেসবুক পেজ এ লাইক দেওয়া।
  • টুইটার পেজ এ কমেন্ট করা।
  • কোন ওয়েবসাইটে রেজিষ্ট্রেশন করা।
  • সার্চ ইঞ্জিনে নির্দিষ্ট “কি-ওয়ার্ড” লিখে সার্চ করা।
  • ওয়েবসাইট ভিসিট করা ইত্যাদি।

রেপিড-ওয়ার্কারসে কাজ করে আপনি প্রতিদিন মিনিমাম $2 – $3 ডলার উপার্জন করতে পারবেন। এবং $8 ডলার (৬৫০ টাকা ) হলেই withdraw করার পর। সর্বোচ্চ দু’দিনের মধ্যে আপনার অর্জিত অর্থ। আপনি পেয়ে যাবেন।

আপনি যদি অনলাইনে নতু্ন হয়ে থাকেন। তাহলে এই সাইটটি থেকে আয় করতে পারেন। তবে, পেমেন্টের জন্য পেপাল একাউন্ট দরকার হবে।

7) Figure-Eight.com

Figure-Eight একটি জনপ্রিয় মাইক্রো জবস সাইট। এটির পূর্ববতী নাম Cloudflower ছিল।

আমার মতে, এটি mturk (অ্যামাজন এর মাইক্রো জব সাইট) এর মতই বিশ্বস্ত। তবে, এখানে কাজের রেট কম। তা সত্বেও আপনাকে প্রযুক্তির সম-সাময়িক বিষয়ে এক্সপার্ট থাকতে হবে। কারণ, এটি মেশিন লানিং (AI) এর মতো বিভিন্ন টেকনোলজি রিলেভেন্ট কাজ প্রদান করে।

এই মার্কেটপ্লেসে অধিকাংশ সময় যে ধরণের কাজ পাওয়া যায়: কনটেন্ট মডারেশন। ডাটা কালেকশন, ডাটা শ্রেণিবদ্ধ করণ, ডাটা এ্যানালাইসিস করণ ইত্যাদি।

8) Remotasks – best micro task site

mTurk এর মতো Remotasks একটি ক্রাউডসোসিং মাইক্রো জব প্ল্যাটফর্ম।
এখানে কাজ করতে হলে। বরাবরের মতো ইংরাজিতে ফ্লোয়েন্সি থাকা জরুরী। কারণ, অনেক বায়ার আপনার সাথে যোগাযোগ করার পর। আপনাকে তার কাজটি করতে দিবে।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো: এখানে কাজ করার আগে। অনেক নিয়ম-নীতি জানা লাগবে। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

9) SmartCrowd | online micro job platform

স্মার্টক্রাউড একটি best crowdsourcing প্লাটফর্ম। 2012 সালে এই সাইটটি virtual-Bee নামে প্রতিষ্ঠা করা হলেও। 2015 সালে স্মার্ট-ক্রাউড নামে পরিবর্তন করা হয়।

স্মার্টক্রাউড Mturk আর Crowdflower এর মতই অন্যতম সেরা মাইক্রো-ওয়ার্কিং সাইট।
তবে, এদের কাজেরও কিছু বিশেষত্ব রয়েছে। যা প্রতিনিয়ত আপডেট হচ্ছে।

এবং কোম্পানীর উন্নয়নে এরা বাংলাদেশের মতো অনান্য দেশের (ইন্টারন্যাশনাল) ফ্রিল্যান্সারদেরকে। তুলনামূলক আগের চেয়ে অনেক গুরুত্ব দিচ্ছে।

সুতরাং, আপনার যদি microWorkers এবং rapidWorkers এর মত সাইটে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকে। তাহলে SmartCrowd এ একাউন্ট খুলতে পারেন।

সতর্কতা: এই সাইটে কাজ করার সময়। যদি ই-মেইল সাবমিটের কাজ করেন। তাহলে কখনই ফেক বা ভূয়া ই-মেইল ব্যবহার করবেন না। বরং যেই ই-মেইল দিয়ে একাউন্ট খুলবেন। সেই E-mail দিয়েই সব সময় কাজ করবেন।

আর Email এর ক্ষেত্রে gmail, Hotmail বা Yahoo মেইল ব্যবহার করাই উত্তম।

10) clixsense | online small jobs site

যদিও ClixSense একটি PTC (paid to click) সাইট। তথাপি Crowdflower আর rapidWorker সাইটের মতো এখান থেকেও সার্ভে, সাইন আপসহ বিভিন্ন রকমের task করে ইনকাম করতে পারবেন।

PTC সাইট কি?

এ্যাডস দেখে বা ক্লিক করে, যে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র উপায়ে টাকা উপার্জন করা যায়। তাই মূলত PTC (paid to click) সাইট।

মনোযোগ দিন: সাধারণত আমি PTC সাইট নিয়ে লিখতে পছন্দ করিনা। তারপরও ক্লিকসেন্স এর ব্যাপারটা একটু ভিন্ন রকম। কারণ, এখান থেকে আপনি শুধুমাত্র এ্যাড না। বরং সার্ভে, সাইন আপ, ইমেইল সাবমিটসহ অনান্য সাইটের মতোই কাজ পাবেন।

তবে, ক্লিকসেন্স এর কাজের রেট তুলনামূলক কম। তাই অনেকেই এখানে কাজ করতে আগ্রহী হয় না। তবে, আপনার যদি youtube চ্যানেল। বা Facebook পেজ থাকে। তাহলে আপনি এই সাইটটিতে একাউন্ট খুলতে পারেন। এবং রেফার করে ইনকাম করতে পারেন।

ক্লিকসেন্স সম্পর্কে আরো জানতে এখানে ক্লিক করুন

মূলত, আমি best কয়েকটি micro job site নিয়ে পর্যালোচনা করতে চেষ্টা করেছি।

আপনি যদি উপরে উল্লেখিত যে কোন 2টি বা 3টি সাইটে কাজ করতে পারেন। আমার বিশ্বাস, তাহলে আপনি অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন। কারণ, এই 10 টি সাইট আমি অনেক রিসার্চ করার পর।

বেশ কয়েকটি সাইটে একজন সাধারণ মাইক্রো-ফ্রিল্যান্সার হয়ে কাজ করেছি। এবং সবগুলো সাইটের রিভিউ চেক করার পর। আপনাদের জন্য 10 টি best micro jobs site নিয়ে পর্যালোচনা করলাম।

লেখাটি কেমন লাগলো? অথবা আপনার কি আরো কিছু জানার আছে?

    তাহলে Comment box এ কমেন্ট করে জানান। আশ্বাস রাখতে পারেন যে, অতি শীঘ্রই আপনার কাঙ্খিত উত্তর পাবেন।

    Show More
    moneyBag24 Ads.bag

    Related Articles

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Back to top button
    close
    Close
    Close

    Adblock detected

    Please! Close the Ads blocker.
    %d bloggers like this: